পটলের চোছা ভর্তা

পটলের চোছা ভর্তা

পটলের চোছা ভরতা 🙂 খুব মজা (Potol vorta)

খুব খুবই সহজ ও সাধারন। আমরা সব সময় পটোলের চোছা ফেলে দেই। মাঝেমধ্যে একটু অন্য রকম হলে ক্ষতি কি?

উপকরন : পটোলের চোছা পরিমান আপনার ইচছা। এই পরিমানের উপর পিয়াজকুঁচি, কাঁচামরিচ, রশুন ( একটু বেশী ), কালোজিরা ও শরিষার তেল, লবন।

( কালোজিরা পটলের চোছার পরিমানের থেকে একটু বেশী )।

প্রনালী : পটল ছিলে চোছা গুলো ভালো করে ধুয়ে নিন। কড়ায়ে তেল দিয়ে পিয়াজকুঁচি, রশুনকুঁচি, কাঁচামরিচ ফঁলি দিয়ে নেড়েচেড়ে পটল চোছা দিয়ে লবন দিয়ে নেড়ে ঢেকে দিন। সেদধ বা ভাজা ভাজা হয়ে এলে ( যদি সেদ্ধ না হয় তবে অলপ পানি দিতে পারেন)। কালোজিরা দিয়ে আবার ভেজে নিন।

বেশি ভাজবেন না। কালোজিরা পুড়ে গেলে ভর্তা তিতা লাগবে।

এবারে শিলপাটাতে পিষে নিন। ব্যস রেড়ি হয়ে গেল পটলের চোছা ভর্তা।
কালোজিরা দিয়া যে কোন ভর্তা শরীরের ব্যথা বিষ, ঠান্ডা লাগা ইত্যদির জন্য খুবই উপকারি।